সোনারগাঁয়ে কিশোরীকে ঘুমের ঔষধ খাইয়ে ধর্ষণের অভিযোগ

সোনারগাঁ( নারায়ণগঞ্জ) প্রতিনিধি: নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁয়ের কাঁচপুর উত্তরপাড়া গ্রামে এক কিশোরীকে বান্ধবীর সহযোগিতায় কোমল পানীর সঙ্গে ঘুমের ঔষধ খাইয়ে ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে ইসমাঈল নামের এক যুবকের বিরুদ্ধে। সোমবার বিকেলে অভিযুক্ত ইসমাঈলের বাড়িতে এ ঘটনা ঘটে। ঘটনার পর গতকাল মঙ্গলবার দুপুরে ধর্ষিত নারীর মা বাদী হয়ে সোনারগাঁ থানায় দুজনকে আসামী করে মামলা দায়ের করেছেন। মামলা দায়েরের পর আসামীরা পলাতক রয়েছে। ডাক্তারি পরীক্ষার জন্য নারায়ণগঞ্জ ভিক্টিরিয়া হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

সোনারগাঁ থানায় দায়ের করা এজহারে কিশোরীর মা উল্লেখ করেন, উপজেলার কাঁচপুর উত্তরপাড়া গ্রামের আল আমিনের মেয়ে লামিয়া আক্তার ভূক্তভোগী ওই কিশোরীর বান্ধবী। আমি ও আমার স্বামী কাজে চলে যাওয়ার পর লামিয়া আমাদের বাড়িতে নিয়মিতভাবে যাতায়ত করতো। সোমবার বিকেলে লামিয়া আমার বাড়িতে এসে তার চাচা একই গ্রামের নজরুল ইসলামের ছেলে ইসমাঈলের বাড়িতে বেড়ানোর কথা বলে নিয়ে যায়। পরবর্তীতে কৌশলে কোমল পানীর সঙ্গে ঘুমের ঔষধ মিশিয়ে অচেতন করে লামিয়ার সহযোগিতায় ওই কিশোরীকে ইসমাইল ধর্ষণ করে। সন্ধ্যার দিকে ঘুম থেকে জেগে ওই কিশোরী নিজেকে বিবস্ত্র অবস্থায় দেখতে পায়। এ বিষয়টি বাড়িতে গিয়ে তার মায়ের সঙ্গে বিস্তারিত আলোচনার পর সোনারগাঁ থানায় এসে গতকাল মঙ্গলবার দুপুরে ধর্ষিত নারীর মা বাদী হয়ে সোনারগাঁ থানায় দুজনকে আসামী করে মামলা দায়ের করেছেন। মামলা দায়েরের পর আসামীরা পলাতক রয়েছে। পুলিশ চিকিৎসার জন্য ঐ কিশোরীকে নারায়ণগঞ্জ ভিক্টিরিয়া হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

সোনারগাঁ থানার ওসি তদন্ত তবিদুর রহমান বলেন, এ ঘটনায় মামলা গ্রহন করা হয়েছে। আসামীদের গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।

Please follow and like us: