ধর্ষণের আখ্যা দিয়ে মধ্যযুগীয় কায়দায় নির্যাতন !

রুদ্রবার্তা২৪.নেট: বন্দরে ধর্ষণের আখ্যা দিয়ে আব্দুল মতিন নামে এক ব্যাক্তিকে মধ্যযুগীয় কায়দায় নির্যাতন করার অভিযোগ পাওয়া গেছে। তবে এ নির্যাতনের ঘটনায় ১ মিনিট ১৩ সেকেন্ডের একটি ভিডিও ফুটেজ সংবাদকর্মীর কাছে আসে। সাম্প্রতিক বন্দরে কুশিয়ারা এলাকায় পুতুলের বাড়িতে এ ঘটনা ঘটেছে।

জানা গেছে, বন্দর উপজেলাধীন কুশিয়ারা এলাকার পুতুলের( ছদ্দ) নামে এক কিশোরী মেয়েকে ধর্ষণ করার অভিযোগ তুলেন পাশের বাড়ির আব্দুল মতিন নামে এক ব্যাক্তির বিরুদ্ধে। তবে এ ঘটনাটি ধামাচাপা দিতে সামাজিক ভাবে এলাকায় শালিসের মাধ্যমে ধর্ষক কে মধ্যযুগীয় কায়দায় নির্যাতন করে ধর্ষণের বিষয়টি মিমাংসা করা হয়েছে।

ভিডিওতে দেখা যায়, আব্দুল মতিন নামে এক ব্যাক্তিকে জুতার মালা পড়িয়ে জুতা পেটা করে নির্যাতন করছে। এবং নাকে খড় দিতেও দেখা গেছে। পাশে স্থানীয় কিছু রাজনৈতিক ব্যাক্তিসহ এলাকার বিচারকরা বসে রয়েছেন। পাশ থেকে এক মহিলা অকট্যভাষায় গালমন্দ করছে এবং নির্যাতনের হাত থেকে বাঁচার জন্য আকুতি মিনতি করছেন আব্দুল মতিন।

তারপরও চলছিল বর্বর নির্যাতন। একটি সূত্রে জানা গেছে, কিশোরী ধর্ষণের ঘটনা সামাজিক ভাবে মিমাংসা করে ¯ট্যাম্পে সাক্ষর নিয়ে মধ্যযুগীয় কায়দার নির্যাতন করে রফাদফা করা হয়েছে। সেখানে রাজনৈতিক ব্যাক্তিসহ এলাকার স্থানীয় প্রভাবশালী ব্যাক্তিরা উপস্থিত ছিল। বন্দর থানার অফিসার ইনচার্জ দীপক চন্দ্র সাহা বলেন, ধর্ষণের ঘটনার কোন অভিযোগ পাইনি। কেউ যদি অভিযোগ করে তখন ব্যবস্থা নিবো।

Please follow and like us: