শুভ হত্যার বিচারের দাবিতে সিদ্ধিরগঞ্জে মানববন্ধন

রুদ্রবার্তা২৪.নেট: মোটর মেকানিক্স শুভ হত্যার আসামীদের দ্রুত বিচার ও ফাঁসীর দাবিতে সিদ্ধিরগঞ্জে শোক র‌্যালী ও মানববন্ধন কর্মসূচী পালিত হয়েছে। রোববার (১৪ ফেব্রুয়ারি) সকাল ১১ টায় ঢাকা-চট্রগ্রাম মহাসড়কে নারায়ণগঞ্জ জেলা মটর ওয়ার্কসপ মেকানিক্স ইউনিয়ণ ও এলাকাবাসীর উদ্যোগে এ শোক র‌্যালী ও মানববন্ধনের আয়োজন করেন।

শোক র‌্যালিটি মহাসড়কের কাঁচপুর ব্রীজের পশ্চিমপাড় থেকে শুরু করে শিমরাইল মোড় ডাচ্ বাংলা ব্যাংকের সামনে গিয়ে শেষ হয়। পরে সেখানে মানবন্ধন কর্মসূচি পালন করা হয়।

শোক র‌্যালি ও মানববন্ধন কর্মসূচিতে নিহত শুভ’র ছোট ভাই শরিফুল আলম সৌরভের নেতৃত্বে উপস্থিত ছিলেন-শিমরাইল এলাকার মো. মামুন, মো. সাদ্দাম হোসেন, মো. ওয়াসিম, মনির হোসেন, মো. তুষার, মো. ফারুক, মো. আল-আমিন, এনামুল, আব্দুর রহিম খাঁন, আজিজুল ও জুম্মনসহ আরো অনেকে।

মানববন্ধনে নিহত শুভ’র ছোট ভাই শরিফুল আলম সৌরভ বলেন, আমার ভাই শুভকে যারা হত্যা করেছে আমি তাদের ফাঁসীর দাবি জানাচ্ছি। আসামীরা অনেকে এখন জামিনে এসে আমাদেরকে মামলা তুলে নিতে হুমকি দিচ্ছে।

আসামীরা শিমরাইল এলাকার মাদক ব্যবসায়ী তাদের বিরুদ্ধে একাধিক মাদক মামলা রয়েছে। আমরা তাদের ভয়ে দিন কাটাচ্ছি। তারা বলে বেরাচ্ছে মামলা তুলে না নিলে আমার নিহত বড় ভাই শুভর মত আমাকে মেরে ফেলবে।

উল্লেখ্য গত বছরের এ দিনে সিদ্ধিরগঞ্জ থানার শিমরাইল উত্তরপাড়া এলাকার আব্দুল আজিজের ছেলে আনিছকে মাদকসহ পুলিশ গ্রেপ্তার করে। পরে জামিনে বের হয়ে আসে আনিছ।

ফারুক আনিছকে পুলিশে ধরিয়ে দিয়েছে এমন সন্ধেহে আনিছ ও তার বোন জামাতা জনিসহ কয়েকজন শুভর বন্ধু ফারুককে মারধর করে। পরে ফারুক তার বন্ধুদের নিয়ে জিজ্ঞাসা করতে জনিদের বাড়িতে যায়।

ওখানে তাদের মধ্যে প্রচণ্ড বাকবিতন্ডা হয়। সন্ধ্যায় গ্যারেজ থেকে কাজ শেষ করে শিমরাইল টাইগার ফ্যাক্টরির সামনের রাস্তার দিয়ে বাসায় যাচ্ছিলেন শুভ। পথিমধ্যে রাস্তায় দেখা হয় ইয়াবা ব্যবসায়ী জনি ও আনিছসহ কয়েকজন মাদক ব্যবসায়ী তার বন্ধু ফারুককে মারধর করে।

এসময় শুভ এগিয়ে গেলে তারা শুভকে রড দিয়ে পিটিয়ে গুরুতর রক্তাক্ত জখম করে। তাদের ডাক চিৎকারে এলাকার কয়েকজন যুবক শুভ ও ফারুককে উদ্ধার করতে গেলে মাদক ব্যবসায়ী জনি, আনিছ, সজিব, শাকিল, হৃদয় (২), অনিক, হাসু, নজরুল, বিথি, শাহানাজ, শিউলী ও নাজমাসহ অজ্ঞাতনামা ৩/৪জন তাদের উপর হামলা চালায়।

মাদক ব্যবসায়ীদের হামলায় শুভ, ফারুক, জুম্মন, রফিক, মোজাম্মেল ও হৃদয় (১) আহত হয়। এদের মধ্যে শুভ ও জুম্মনকে দ্রুত উদ্ধার করে স্থানীয় সাজেদা হাসপাতালে নিলে ডাক্তার তাদের ২জনের অবস্থা আশংকাজনক দেখে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে রেফার্ড করে। হাসপাতালে নিয়ে গেলে ডাক্তার শুভকে মৃত ঘোষনা করেন।

Please follow and like us: