গরুর হাটে রেডিমেড পোশাকের দোকান

রুদ্রবার্তা২৪.নেট: ফতুল্লা ডিআইটি মাঠে অবস্থিত অস্থায়ী পশুর হাটের একটি বড় অংশজুড়ে এখনও আছে অস্থায়ী পোশাক মার্কেট। ফলে স্বাভাবিকের তুলনায় হাটটিতে মানুষের উপস্থিতি অনেক বেশি। নেই স্বাস্থ্যবিধির বালাই। এতে করোনাভাইরাস সংক্রমণের আশঙ্কা করছেন হাটের আসা ক্রেতারা।
শনিবার (২৫ জুলাই) ফতুল্লা ডিআইটি মাঠে সরেজমিনে দেখা যায়, হাটের একপাশে কুরবানির পশুর এবং অন্যপাশ জুড়ে অস্থায়ী পোশাক মার্কেট। পশুর হাটের কুরবানির পশুর পাশপাশি বিক্রি হচ্ছে ছেলেমেয়েদের কাপড়সহ নিত্য প্রয়োজনীয় নানা সামগ্রী। ফলে পোশাক কিনতে সেখানে ভিড় করছেন নারী, পুরুষ, শিশুসহ নানা বয়সের মানুষ। ক্রেতা সমাগম বেশি হওয়ায় মানা হচ্ছে না সামজিক দূরুত্বের।
মো. আব্দুর রহিম বলেন, ‘সরকার স্বাস্থ্যবিধি মানার কথা বলেছে কিন্তু এ হাটের স্বাস্থ্যবিধি তো দূরের কথা হাটের ব্যবস্থাপনাই তো নাই। হাটের মধ্যে মার্কেট দিয়া রাখসে। মানুষ আসছে-যাচ্ছে। এভাবে চললে করোনা তো ছড়াবেই।’
বেপারীরা বলেন, ‘আমরা আসছি দুদিন হইলো কিন্তু ইজারাদাররা মার্কেট সরাচ্ছেন না। আমাদের কিছু অসুবিধা তো হচ্ছে কিন্তু আমরা এখানে কি বললো।’
এ বিষয়ে ফতুল্লা ডিআইটি পশুর হাটের ব্যবস্থাপক অমি চৌধুরী বলেন, ‘আমাদের হাট এখনো বসেনি। গরু মাত্র আসছে। মানুষ আসছে-যাচ্ছে। এই পোশাক মার্কেট এখানেই থাকে। গরু এখনো তেমনভাবে আসে নাই বলে, মার্কেট আছে। কিন্তু আমরা মার্কেট তুলে দেবো। আগামীকাল আমরা সবকিছু ঠিক করে ফেলবো।’

Please follow and like us: