১১ নদীর ১৫ পয়েন্টে পানি বিপদসীমার ওপরে

দেশের ১১টি নদীর ১৫টি পয়েন্টের পানি বিপদসীমার ওপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে বলে জানিয়েছে বন্যা পূর্বাভাস ও সতর্কীকারণ কেন্দ্র। এতে করে দেশের উত্তর-পূর্বাংশের কুড়িগ্রাম, গাইবান্ধা, বগুড়া, জামালপুর, সিরাজগঞ্জ ও টাঙ্গাইল জেলা প্লাবিত হয়েছে। অন্যদিকে বন্যার পানিতে প্লাবিত হয়েছে সিলেট ও সুনামগঞ্জও। আগামী ২৪ ঘণ্টায় উত্তর-পূর্বাংশের বন্যা পরিস্থিতি অপরিবর্তিত থাকলেও উন্নতি হতে পারে সিলেট ও সুনামগঞ্জের অবস্থা। এদিকে সারাদেশের বন্যা পরিস্থিতিতে কন্ট্রোল রুম চালু করেছে পানি সম্পদ মন্ত্রণালয়।

যে ১৫ পয়েন্ট দিয়ে পানি বিপদসীমার ওপরে প্রবাহিত হচ্ছে, সেগুলো হলো ধরলা নদীর কুড়িগ্রাম পয়েন্ট, ঘাগট নদীর গাইবান্ধা পয়েন্ট, ব্রহ্মপুত্র নদীর নুনখাওয়া ও চিলমারী পয়েন্ট, যমুনা নদীর ফুলছড়ি, বাহাদুরাবাদ, সারিয়াকান্দি, কাজীপুর, সিরাজগঞ্জ পয়েন্ট, আত্রাই নদীর বাঘাবাড়ি পয়েন্ট, ধলেশ্বরীর এলাসিন, পদ্মার গোয়ালন্দ, সুরমার কানাইঘাট ও সুনামগঞ্জ পয়েন্ট এবং পুরাতন সুরমার দিরাই এলাকায় পানি বিপদসীমার ওপরে অবস্থান করছে।

বন্যা পরিস্থিতির পর্যবেক্ষণে কন্ট্রোলরুম চালুর বিষয়ে পানি সম্পদ মন্ত্রণালয়ের জনসংযোগ কর্মকর্তা আসিফ আহমেদ জানান, বন্যা পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণ ও তথ্য সংগ্রহে কন্ট্রোল রুম চালু করা হয়েছে। কন্ট্রোল রুমের নম্বর হচ্ছে ০১৩১৮-২৩৪৫৬০।

এদিকে বন্যা পূর্বাভাস ও সতর্কীকরণ কেন্দ্রের নির্বাহী প্রকৌশলী আরিফুজ্জামান ভুইয়া বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, এখন যে পরিস্থিতি আছে তা আগামী ৪-৫ দিন প্রায় একই রকম থাকবে। এরপর আবার বৃষ্টি শুরু হলে পানি বাড়তে পারে। এতে দেশের উত্তর-পূর্ব ও মধ্যাংশের যেসব এলাকা এখন প্লাবিত, সেখানে পানির উচ্চতা বাড়বে এবং নতুন নতুন এলাকা প্লাবিত হওয়ার শঙ্কা রয়েছে।

তিনি আরও বলেন, এরমধ্যে সিলেট ও সুনামগঞ্জের পরিস্থিতি ভালো হবে। তবে আগামী সপ্তাহে ওই এলাকাগুলো আবার প্লাবিত হতে পারে বলে আশঙ্কা প্রকাশ করেন তিনি।

সতর্কীকরণ কেন্দ্রের পূর্বাভাসে বলা হয়, ব্রহ্মপুত্র-যমুনার পানি সমতল স্থিতিশীল আছে, যা আগামী ৪৮ ঘণ্টা পর্যন্ত অব্যাহত থাকতে পারে। গঙ্গা-পদ্মার পানি সমতল বৃদ্ধি পাচ্ছে, যা আগামী ৪৮ ঘণ্টা পর্যন্ত অব্যাহত থাকতে পারে। আবার মেঘনা অববাহিকার প্রধান নদীগুলোর পানি সমতল কমছে, যা আগামী ৪৮ ঘণ্টা পর্যন্ত অব্যাহত থাকতে পারে।

পূর্বাভাসে আরও বলা হয়, আগামী ২৪ ঘণ্টায় যমুনা নদীর আরিচা এবং ৪৮ ঘণ্টায় পদ্মা নদীর ভাগ্যকূল পয়েন্টে পানি বিপদসীমা অতিক্রম করতে পারে। এদিকে আগামী ২৪ ঘণ্টায় কুড়িগ্রাম, গাইবান্ধা, বগুড়া, জামালপুর, সিরাজগঞ্জ ও টাঙ্গাইল জেলার বন্যা পরিস্থিতি স্থিতিশীল থাকতে পারে। অন্যদিকে সিলেট ও সুনামগঞ্জে বন্যা পরিস্থিতির উন্নতি হতে পারে।

Please follow and like us: