এবার বন্দরের দুই হাজার মানুষের মুখে হাসি ফোটালেন এড. সাখাওয়াত

রুদ্রবার্তা২৪.কম: প্রাণঘাতি করোনা ভাইরাসের প্রাদূর্ভাবে বিপর্যস্ত সারা বিশ্ব। বাংলাদেশেও করোনা সংক্রমণ রোধে প্রায় দুই মাস যাবত লকডাউন চলছে। এই লকডাউনে কর্মহীন বেকার হয়ে পরা দরিদ্র জনগোষ্ঠির পাশে সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দিয়ে তাদের মুখে হাসি ফুটিয়ে যাচ্ছেন নারায়ণগঞ্জ মহানগর বিএনপির সিনিয়র সহ সভাপতি এড. সাখাওয়াত হোসেন খান। শনিবার (১৬ মে) সকালেও নারায়ণগঞ্জের বন্দর থানাধীন লক্ষণখোলার দুই হাজার মানুষের মাঝে খাদ্য সামগ্রী বিতরণ করেছেন মানবতার ফেরিওয়ালা এড. সাখাওয়াত।

বাংলাদেশে করোনা ভাইরাসের প্রকোপ শুরু হওয়ার পর থেকেই জনসাধারণকে সচেতন করার পাশাপাশি মাস্ক ও হ্যান্ড স্যানিটাইজার বিনামূল্যে বিতরণ করেন এড. সাখাওয়াত হোসেন খান। তাছাড়া দেশব্যাপী লকডাউন ঘোষনার পর থেকে দলীয় নেতাকর্মীদের গোঁপনে সাহায্য সহযোগিতা করে চলেছেন, এর পাশাপাশি দুস্থ্য অসহায় সাধারণ মানুষকে চাল ডালসহ বিভিন্ন নিত্য প্রয়োজনীয় দ্রব্য দিয়ে মানবতার অনন্য দৃষ্টান্ত স্থাপন করে চলেছেন এড. সাখাওয়াত হোসেন খান।

শনিবার বন্দরের লক্ষণখোলায় অসহায়দের মাঝে ত্রাণ বিতরণকালে তিনি বলেন, সরকার করোনা মোকাবেলায় চরমভাবে ব্যর্থ হয়েছে। সরকারের ত্রাণ সাধারণ মানুষের কাছে পৌছাচ্ছে না, তা আওয়ামীলীগের নেতাকর্মীদের পকেটে যাচ্ছে। লকডাউনে কর্মহীণ অসহায় মানুষের জন্য বরাদ্দকৃত ত্রাণ সামগ্রী আওয়ামীলীগের নেতারা লুটেপুটে খাচ্ছে। সরকার দেশের ৫০ লক্ষ মানুষকে বিকাশের মাধ্যমে টাকা দেওয়ার পরিকল্পনা করেছে অথচ এখানেও দূর্নীতি হচ্ছে। সরকারের এই টাকা হাতিয়ে নিতে আওয়ামীলীগের নেতাকর্মীদের নাম ও মোবাইল নাম্বার জমা দেওয়া হয়েছে, সেসব তালিকায় খেটে খাওয়া অসহায় মানুষের নাম স্থান পায়নি।

তিনি আরো বলেন, বাংলাদেশের গণতন্ত্রের আপোষহীণ নেত্রী তিনবারের সাবেক প্রধানমন্ত্রী বেগম খালেদা জিয়া এবং আগামীর রাষ্ট্রনায়ক তারেক রহমানের দিক নির্দেশনায় আমরা করোনার বিপর্যস্ত সাধারণ মানুষের পাশে এসে দাড়িয়েছি। আমাদের সামর্থ অনুযায়ী আমরা চেষ্টা করছি আপনাদের পাশে এসে দাড়াতে। আপনারা মানবতার মা বেগম খালেদা জিয়া ও তার পুত্র তারেক রহমানের জন্য আল্লাহর দরবারে দোয়া করবেন।

বন্দর থানা জিয়া পরিষদের সভাপতি ফারুক হোসেনের সার্বিক তত্ত্বাবধানে অনুষ্ঠিত ত্রাণ বিতরণী অনুষ্ঠানে আরো উপস্থিত ছিলেন নারায়ণগঞ্জ মহানগর বিএনপির সহ সভাপতি মনির হোসেন খান, জেলা মৎস্যজীবী দলের আহবায়ক এড. এইএম আনোয়ার প্রধান, জেলা যুবদলের সহ সভাপতি পারভেজ মল্লিক, যুগ্ম সম্পাদকশাহীন আহমেদ, মহানগর যুবদলের যুগ্ম সম্পাদক মঞ্জুরুল আলম মুসা, জেলা যুবদলের কার্যকরী সদস্য স¤্রাট হোসেন সুজন, মহানগর তাঁতী দলের আহবায়ক মীর আলমগীর, মহানগর মৎস্যজীবী দলের যুগ্ম আহ্বায়ক আনিসুর রহমান টিলু, আবুল হোসেন আদু, যুবদল নেতা নাসির হোসেন নসু, কবির হোসেন, আনোয়ার হোসেন সজল, রেহানউদ্দিন প্রমূখ।

Please follow and like us: