যার যার ঘরে থাকুন, করোনা ভাইরাস প্রতিরোধ করুন: কাউন্সিলর সজল

রুদ্রবার্তা২৪.কম: সরকারি নির্দেশ উপেক্ষা করে ঘোষিত ছুটিতে যারা শহর ছেড়ে গ্রামে যাচ্ছেন ও বাসা থেকে বের হচ্ছেন, তাদের সতর্ক করে নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশনের ১৬ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর শেখ নাজমুল আলম সজল বলেছেন, করোনা ভাইরাস প্রতিরোধের মূলমন্ত্র ‘যার যার ঘরে থাকুন, করোনা ভাইরাস প্রতিরোধ করুন।’ এ জন্য ২৬ মার্চ থেকে ৪ এপ্রিল পর্যন্ত সাধারণ ছুটি ঘোষণা করা হয়েছে। এই ছুটি উৎসব করার জন্য নয়, বাসায় থাকার জন্য দেওয়া হয়েছে।
বুধবার (২৫ মার্চ) দুপুরে সহযোগীতার মাধ্যমে জনসচেতনতা তৈরীতে ‘স্লোগান’ এর পক্ষ থেকে নাসিক ১৬ নং ওয়ার্ডের সাধারন জনগনের মাঝে বিনামূলে ১০০০ বোতল হেক্সিসল হ্যান্ড রাব বিতরণ কার্যক্রমের উদ্বোধনকালে নিজ কার্যালয়ে এ কথা বলেন তিনি।
এদিন, ৫০০ বোতল হ্যান্ড রাব (স্যানিটাইজার) বিতরণ করে ‘স্লোগান’। এ কার্যক্রমে স্বেচ্ছাসেবী হিসেবে তাদের সহযোগীতা করছে স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন ‘মানুষের জন্য আমরা’।
সরকারের নির্দেশনা অনুযায়ী সবাইকে বাসায় থাকার আহ্বান জানিয়ে নাজমুল আলম বলেন, করোনা ভাইরাস সংক্রমণ প্রতিরোধে প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশে কিছু নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে। সে অনুযায়ী ছুটি ঘোষণা করা হয়েছে। পরিষ্কার করে বলতে চাই, এই ছুটি উৎসব করার জন্য নয়, করোনা প্রতিরোধের জন্য। এটি কোনো উৎসব ভোগের জন্য দেওয়া হয়নি।
তিনি বলেন, অতীব জরুরি প্রয়োজনে ঘরের বাইরে যেতে হলে স্যানিটাইজেশন ও সব রকম প্রতিরোধমূলক ব্যবস্থা নিয়েই যাবেন। ট্রেন, বাস, লঞ্চ বন্ধের কথা জানিয়ে তিনি বলেন, যে জায়গায় আছেন আপনারা, স্থান ত্যাগ করবেন না। সবাইকে সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখার পাশাপশি করোনাভাইরাস নিয়ে আতঙ্কিত না হয়ে এই মহামারি প্রতিরোধে সরকারের কার্যকমে সহযোগীতা করার আহ্বান জানান তিনি।
এর আগে এমন একটি মহতী উদ্যোগ গ্রহন করায় “স্লোগান” সদস্যদের ধন্যবাদ জানিয়ে কাউন্সিলর বলেন, সোনার বাংলা গড়তে হলে, সোনার মানুষ হইদ এই মূলমন্ত্রে এগিয়ে চলেছে সংগঠনটি। সোনার মানুষ তো তারাই যারা দেশের যেকোন ক্রান্তিলগ্নে নিজেদের উজাড় করে দিয়ে দেশ ও জনগনের সেবা করে।
এসময়, জনগনের মাঝে হ্যান্ড স্যানিটাইজার বিতরণকালে যেন নিজেরা ভাইরাসে আক্রান্ত না হয়ে যায় সেজন্য “স্লোগান” সংগঠনের সদস্যদের সাবধানতা অবলম্বন করার নির্দেশ দেন কাউন্সিলর নাজমুল আলম সজল।
‘স্লোগান’ মুখপাত্র জানান, সরাকরের একার পক্ষে করোনাভাইরাসের চ্যালেঞ্জ মোকাবেলা সম্ভব নয়। যদি না আমরা সাধারন জনগন নিজ থেকে সচেতন হই। তাই নিজেদের প্রয়োজনেই আমাদের বর্তমানে যতটুকু সম্ভব সামাজিক দুরত্ব বজায় রাখা উচিত।
হ্যান্ডরাব বিতরণ প্রসঙ্গে তিনি জনান, রাজধানী ঢাকার মতো নারায়ণগঞ্জও একটি জনবহুল শহর, বাংলাদেশ একটি জনবহুল দেশ। এখানে সম্পূর্ন লকডাউন করা কঠিন। সাধারন দিন মজুর যারা দিন আনে দিন খায় জীবিকার প্রয়োজনে তাদের ঘর থেকে বের হতে হয়। তাই ওই সমস্ত সাধারন মানুষকে
বিনামূল্যে হ্যান্ড রাব বিতরন করে তাদের সহায়তার মাধ্যমে সচেতন করতে আমরা আমাদের অবস্থান থেকে কাজ করে করোনাভাইরাস প্রতিরোধে কিছুটা হলেও ভূমিকা রাখতে চাই।

Please follow and like us: