রূপগঞ্জে রাস্তার পাশের তেলের বর্জ্য অপসারণের দাবি

রুদ্রবার্তা২৪.কম: নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জ উপজেলার রূপসীতে রাস্তার পাশে ফেলে রাখা তেলের বর্জ্যে (ছালিমাটি) দগ্ধ হয়ে স্কুল ছাত্রের মৃত্যুর ঘটনায় মানববন্ধন করেছে এলাকাবাসী ও নিহত স্কুল ছাত্রের সহপাঠীরা।
বৃহস্পতিবার (২০ ফেব্রুয়ারি) সকালে তারাব পৌরসভার রূপসী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সামনের সড়কে এ মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়।
গত ১০ ফেব্রুয়ারি ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের বার্ন ইউনিটে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মৃত্যু হয় রূপগঞ্জের হাজী মো. আনোয়ার হোসেন মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের ৮ম শ্রেণির ছাত্র মো. আশরাফুল ইসলামের। গত ৬ ফেব্রুয়ারি রূপসী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সামনের সড়কের পাশে ফেলে রাখা ছালিমাটির বর্জ্যে দগ্ধ হয় সে। এর আগেও ছালিমাটিতে পড়ে দগ্ধ হওয়ার একাধিক ঘটনা ঘটেছে।
এমন ঘটনার প্রতিবাদে ও সড়কের পাশে ছালিমাটি ফেলা বন্ধের দাবিতে মানববন্ধন করেছে এলাকাবাসী। এতে উপজেলার কয়েকটি স্কুলের শিক্ষার্থী ও শিক্ষকরাও অংশ নেয়।
মানববন্ধনে বক্তারা কয়েকটি দাবি তুলে ধরেন। দাবিগুলোর মধ্যে রয়েছে- অসতকর্তা ও অজ্ঞতার জন্য দুর্ঘটনার সকল দায়িত্ব কর্তৃপক্ষকে নিতে হবে। ক্ষতিগ্রস্থ পরিবারকে আর্থিক সহায়তা প্রদান করতে হবে। বিদ্যালয়গামী শিক্ষার্থী ও জনসাধারণের চলাচলের ঝুঁকি নিরসন করতে হবে। অন্যথায় ঝুঁকিপূর্ণ বর্জ্যগুলো লোকালয় থেকে অন্য কোথাও স্থানান্তর করতে হবে।
মানববন্ধনে বক্তব্য রাখেন লিটল ফাওয়ার কিন্ডার গার্টেন স্কুলের ৬ষ্ঠ শ্রেণির শিক্ষার্থী ইসরাত জাহান ঈশিকা, ৭ম শ্রেণির ছাত্রী ঈশিকা, ৮ম শ্রেণির ছাত্র নাম সংগ্রাম। তারা তাদের সহপাঠীর মৃত্যুর ঘটনায় দোষিদের বিচার দাবি করেন।
মানববন্ধনে অংশগ্রগণ করেন রূপসী সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক পরীভানু আক্তার, হাজী আয়েত আলী উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষক শেখ তাজউদ্দীন আহমেদ, গন্ধর্বপুর স্কুলের সহকারী শিক্ষক শিহাবুর রহমান, আ. সোবহান, হাজী মো. আনোয়ার হোসেন মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষক সিদ্দিক, নিরব হোসেন, হাফিজুর রহমান, সোনিয়া, মিলি, লিটল ফাওয়ার কিন্ডারগার্টেন অধ্যক্ষ মোঃ ফরহাদ ভুইয়া, নিহতের পিতা বাবুল মোল্লা।

Please follow and like us: