টাকাগুলো মায়ের চিকিৎসার জন্য বন্ধুর কাছে থেকে ধার নিয়েছিলাম আমি-ডিবির এসআই আরিফ

স্টাফ রিপোর্টার: প্রায় তিন মাস পূর্বে সাদা রংয়ের গাড়ির ভিতর সিটে টাকা রাখা অবস্থায় কান্ত হয়ে আমি ঘুমিয়ে পড়ি। আর এমন অবস্থায় কেউ আমার এই ছবিটি তুলেছিল। যা আমার জানার বাইরে ছিল। এই ছবিটি নিয়ে কেউ কেউ অনলাইনে এখন বিভ্রান্তি ছড়াচ্ছে। যা খুবই দুঃজনক বলে মন্তব্য করেন নারায়ণগঞ্জ জেলা গোয়ান্দা শাখার (ডিবি) এস আই আরিফ।
সামাজিক মাধ্যমে ডিবির এসআই আরিফ গাড়ির ভিতর টাকা সহ ঘুমিয়ে পড়া একটি ছবি অনলাইন প্রচার প্রসঙ্গে বুধবার বিকেলে তিনি এসব কথা বলেন।
তিনি আরো বলেন, প্রকৃত পক্ষে গত তিনমাস আগে আমার মায়ের চিকিৎসার জন্য আমার বন্ধু মিন্টুর কাছ থেকে এক লাখ ২০ হাজার টাকা ধার নেই। যার যথাযথ প্রমানও রয়েছে। ধার নেওয়া টাকা নিয়েই আমি ডিউটিতে চলে যাই। পরে ডিউটি শেষে গাড়ির মধ্যে কান্ত হয়ে শুয়ে পড়ি আমি। ছবিটিতে যেই গেঞ্জিটি আমি পড়াছিলাম। এই গেঞ্জিটি আমি বিগত দুই মাস আর পরিধান করিনি। আমার হাতের আংটিগুল্ওো গত জুলাই মাসে ট্রেনিং যাওয়ার আগে খুলে রাখি। যা আর এখনো পরিনি। ছবি তে যেই সাদা রংয়ের গাড়িটি রয়েছে এই গাড়িটি এক মাস যাবৎ আমরা আর ব্যবহার করছি না। প্রায় একমাস যাবৎ আমি সহ আমার টিম ডিউিটির জন্য একটি কালা রংয়ের হাইস গাড়ি ব্যবহার করছি। কিন্তু কেউ কেউ প্রচার করছে এই ছবিটি গতকাল মঙ্গলবারের ছবি। যেহেতু ঘটনার ছবিটিই পুরান সেখানে এই ছবিটি কিভাবে গতকাল মঙ্গলবারের হল?
তিনি আরো বলেন, আমরাও মানুুষ। পুলিশী জীবনের বাইরেও আমাদেরও ব্যক্তিগত জীবন রয়েছে। কাজ করতে করতে আমরাও কান্ত হই। আমার মায়ের চিকিৎসার টাকা সিটে নিয়ে ঘুমিয়ে পড়া দোষের কোন বিষয় নয়। আমি সবার কাছে অনুরোধ করবো এই ছবিটি নিয়ে বিভ্রান্তি না হওয়ার জন্য। সততার সাথে জনগনের সেবায় কাজ করেছি এবং সব সময় কাজ করে যাবো।

Please follow and like us: