রূপগঞ্জে জোরপুর্বক বালু ভরাটকে কেন্দ্র করে উত্তেজনা, সংঘর্ষের আশঙ্কা

রূপগঞ্জ প্রতিনিধি : নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জে আদালতে মামলা চলমান অবস্থায় অস্ত্রেশস্ত্রে সজ্জিত হয়ে জোরপুর্বক বালু ভরাটকে কেন্দ্র করে উত্তেজনার সৃষ্টি হয়েছে। এ ঘটনায় যে কোন সময় রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষের আশঙ্কা করছে এলাকাবাসী। গতকাল মঙ্গলবার দুপুরে একটি পক্ষ উপজেলার তারাব দক্ষিণপাড়া এলাকায় একটি জমিতে অবৈধ ভাবে জোরপুর্বক বালু ভরাটের চেষ্টা করলে এ উত্তেজনার সৃষ্টি হয়।
তারাব দক্ষিণপাড়া এলাকার মুনসুর আলী অভিযোগ করে জানান, তারাব মৌজার সিএস খতিয়ান-১৯৬, সিএস ও এসএ নং-১৬২ দাগে ৩৬ শতাংশ জমি তার মা ফুলজান বিবি ওরফে ফুল মেহের পৈত্রিক সুত্রে মালিক হয়ে কিছু জমিতে মৎস চাষ ও বাকি জমি আবাদ ভুমি হিসেবে ভোগদখল করে আসছেন। একই এলাকার মৃত নৈমুদ্দিনের ছেলে প্রতিপক্ষ সুরুজ মিয়াসহ তার লোকজন মা ফুল মেহেরের দখলী জমি অবৈধ ভাবে জবরদখলের চেষ্টা চালিয়ে আসছে দীর্ঘদিন ধরে। সুরুজ মিয়া ওই জমি অবৈধ ভাবে নিজের দাবি করে। এ জন্য ফুল মেহের ২০১৬ সালে নিরুপায় হয়ে বিজ্ঞ জেলা জজ ২য় আদালত দেওয়ানি মোকদ্দমা নং-৬৬৫ দায়ের করেন। বর্তমানে মামলাটি আদালতে চলমান রয়েছে। আদালতে মামলা থাকলেও সুরুজ মিয়াসহ সোহান, মামুনসহ তাদের লোকজন অস্ত্রেশস্ত্রে সজ্জিত হয়ে মঙ্গলবার দুপুরে ফুল মেহেরের জমিতে জোরপুর্বক বালু ভরাট করে জবরদখল করতে আসে। এসময় মুনসুর আলীসহ পরিবারের লোকজন বালু ভরাটে বাঁধা দেন। এক পর্যায়ে প্রতিপক্ষের লোকজন প্রকাশ্যে দিবালোকে হত্যাসহ বিভিন্ন ধরনের হুমকি-ধামকি দিলে চরম উত্তেজনার সৃষ্টি হয়। (আজ বুধবার সকালে) যে কোন মুল্যে সুরুজ মিয়াসহ তাদের লোকজন ওই জমিতে বালু ভরাট করে জবরদখল করবে বলে ঘোষণা দেয়। এরপর প্রতিপক্ষের লোকজন এলাকায় হোন্ডা মহড়া দিয়ে আতঙ্কের সৃষ্টি করে। এ ঘটনাকে কেন্দ্র করে যেকোন সময় রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষের আশঙ্কা করছেন এলাকাবাসী।
এ বিষয়ে রূপগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মাহমুদুল হাসান বলেন, এ বিষয়ে একটি অভিযোগ পেয়ে সড়েজমিনে পুলিশ পাঠানো হয়েছে। আদালতে মামলা চলমান অবস্থায় জোরপুর্বক অবৈধ ভাবে বালু ভরাটের চেষ্টা করলে তা করতে দেয়া হবেনা।

Please follow and like us: