বন্দরে ভ্রাম্যমমাণ আদালতের অভিযানে অবৈধ গ্যাস সংযোগ বিচ্ছিন্ন

রুদ্রবার্তা২৪.কম: বন্দরে ভ্রাম্যমাণ আদালতের মাধ্যমে অভিযান চালিয়ে তিতাস গ্যাস কর্তৃপক্ষ প্রায় ২০ হাজার পরিবারের অবৈধ গ্যাস সংযোগ বিচ্ছিন্ন করেছে। সোমবার (৪ নভেম্বর) সকাল ১১ টায় বন্দরের তিনগাঁও এলাকায় এ অভিযান চালানো হয়।

বন্দর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট শুক্লা সরকারের নেতৃত্বে তিতাস সোনারগাঁ জোনাল অফিসের ব্যবস্থাপক প্রকৌশলী জাফরুল আলম তিতাসের কর্তৃপক্ষের জনবল নিয়ে এ অভিযান চালায়।

এ সময় তিতাস কর্তৃপক্ষ ভেকু মেশিন দিয়ে বন্দরের তিনগাঁও প্রাণি সম্পদ হাসপতালের সামনে সোনারগাঁ-নবীগঞ্জ রাস্তার পাশে বিশাল গর্ত খুড়ে অবৈধ মেইন লাইন কেটে গ্যাস সংযোগ বিচ্ছিন্ন করে। এ সংযোগ থেকে তিনগাঁও, মিনারবাড়ি, পদুঘর, বেজেরগাঁও, চিনারদীসহ আশপাশের গ্রামের প্রায় ২০ হাজার পরিবারের গ্যাস বিচ্ছিন্ন হয়েছে। এসকল গ্রামের গ্যাস সংযোগগুলি অবৈধ ছিল বলে তিতাস কর্তৃপক্ষ জানান।

এলাকাবাসী জানান ক্ষমতাসীন দলের নেতারা ও স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান ও মেম্বাররা অবৈধ গ্যাস সংযোগ দিয়ে কোটি কোটি টাকা হাতিয়ে নিয়েছে বলে অভিযোগ রয়েছে। প্রতিটি সংযোগ দিতে তারা ৭০/৮০ হাজার টাকা করে হাতিয়ে নিয়েছে। তিনগাঁও এলাকায় গ্যাসের মেইন পাইপ থেকে ৪র্ ও ২র্ ডায়া পাইপ দিয়ে গ্রামে অবৈধ গ্যাস সংযোগ ছড়িয়ে দিয়েছে তারা।

তিতাস কর্তৃপক্ষ সূত্রে জানা গেছে, প্রায় ৪/৫ বছর যাবৎ এ সকল অবৈধ গ্যাস ব্যবহার করে যাচ্ছে গ্রামের মানুষ। এতে করে সরকারসহ গ্যাস কর্তৃপক্ষ কোটি কোটি টাকার রাজস্ব থেকে বঞ্চিত হয়েছে। গ্যাস সংযোগ বিচ্ছিন্ন করার সময় বিপুল পরিমাণ র‌্যাব ও পুলিশ ঘটনাস্থলে মোতায়েন করা হয়।

সকাল থেকে দুপুর পর্যন্ত অবৈধ গ্যাস সংযোগ বিচ্ছিন্ন অভিযান চালানো হয়। উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা শুক্লা সরকার বলেন, এখন বন্দর ইউপির অবৈধ গ্যাস সংযোগ বিচ্ছিন্ন করা হয়েছে পর্যায় ক্রমে প্রতিটি ইউনিয়নের অবৈধ সংযোগ বিচ্ছিন্ন করা হবে।

Please follow and like us: