রূপগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স ভবনে ভোট কেন্দ্র!

রুদ্রবার্তা২৪.কম: প্রথমবারের মতো আগামী ১৪ অক্টোবর ইলেকট্রনিক্স ভোটিং মেশিন (ইভিএম) পদ্ধতিতে রূপগঞ্জ ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে শেষ মুহূর্তের প্রচারণা চলছে। তবে এ অঞ্চলের ভোট কেন্দ্র সাধারণত স্কুল কলেজ ও মাদরাসার শ্রেণি কক্ষে হলেও গত উপজেলা পরিষদ নির্বাচন থেকে ইউনিয়নের ৮নং ওয়ার্ডের একটি কেন্দ্র উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে পরিচালিত হয়ে আসছে। এতে ভোটের আগের দিন থেকে রোগী ও স্বজনদের হয়রানী বাড়লেও বিকল্প ব্যবস্থা না থাকায় এ বছরও সরকারি এ হাসপাতালের বহির্বিভাগের অংশে চলছে ভোট গ্রহণ প্রস্তুতি।

নির্বাচনের ৪ দিন আগে থেকে এ হাসপাতালের ভবনে ইভিএম প্রশিক্ষণ চলছে। বাড়ছে উৎসুক জনতা ও ভোটারদের ভীর। এতে রোগী পরিবারে বাড়ছে ক্ষোভ। রোগী হয়রানীর আশঙ্কা চরমে ওঠলেও নেই কোন ব্যবস্থা।

শনিবার (১২ অক্টোবর) সকাল থেকে বিকাল পর্যন্ত ইভিএম পদ্ধতির প্রশিক্ষণ চলায় স্থানীয়দের মাঝেও দেখা গেছে চরম ওত্তেজনা। স্থানীয় ভোটার পিয়াল হোসেন ফয়সাল বলেন, একটি বিদ্যালয় না থাকায় এমন গুরুত্বপূর্ণস্থানে ভোট কেন্দ্র কোনমতেই কাম্য নয়। তাই ভোট কেন্দ্র স্থাপনে বিকল্প ব্যবস্থা রাখার দাবি করেন তিনি।

হাসপাতালে আসা রোগীরা অভিযোগ করেন, কোন সরকারি হাসপাতালে ভোট কেন্দ্র রয়েছে তা রোগীদের জানা নেই। ভোটের দিন ঝামেলা হতে পারে এ আতঙ্কে রোগীরা হাসপাতালে আসবেনা। মুমূর্ষু রোগীদের ক্ষেত্রে অন্য কোন বেসরকারি হাসপাতালে চিকিৎসা নেয়া ছাড়া উপায় নেই। তবে এ ক্ষেত্রে দরিদ্র ঘরের রোগীদের সমস্যা সবচেয়ে বেশি।

উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা সাঈদ আল-মামুন বলেন, নির্বাচনের দিন রোগীদের জন্য বিকল্প ব্যবস্থা রয়েছে। কোন সমস্যা হবেনা। চিকিৎসকরা শতভাগ উপস্থিত থাকবেন। আতঙ্ক হওয়ার কিছু নেই।

রূপগঞ্জ উপজেলা নির্বাচন অফিসার মাহবুবুর রহমান বলেন, রূপগঞ্জ ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে ১৭টি ভোট কেন্দ্রে ৩৩ হাজার ১৩৭ জন ভোটার রয়েছেন। ইভিএম পদ্ধতিতে আগামী ১৪ অক্টোবর ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে। তবে, রূপগঞ্জ ইউনিয়নের ৮নং ওয়ার্ডে সরকারি-বেসরকারি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানসহ বিকল্প ব্যবস্থা না থাকায় উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের আউটডোর ব্যবহার করা হয়েছে। তাতে আবাসিক রোগীদের সমস্যা হবে না।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মমতাজ বেগম বলেন, ১৪ অক্টোবর নির্বাচনে সবরকম প্রস্তুতি নেয়া হয়েছে। একে শান্তিপূর্ণ করার জন্য পর্যাপ্ত আইন-শৃঙ্খলা বাহীনি মাঠে থাকবে। এ সময় ভোটারদের নির্ভয়ে কেন্দ্রে গিয়ে ভোট দেয়ার আহবান জানান তিনি।

সূত্র জানায়, নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে আওয়ামী লীগের মনোনীত প্রার্থী সালাউদ্দিন ভুঁইয়া নৌকা প্রতীকে এবং স্বতন্ত্র প্রার্থী কবির হোসেন মোটর সাইকেল প্রতীক নিয়ে নির্বাচনী মাঠে প্রচার চালাচ্ছেন। তবে প্রার্থী না থাকায় রূপগঞ্জ ইউনিয়নের ১নং ওয়ার্ডে সদস্য পদে আলমগীর হোসেন, ৪ নং ওয়ার্ডে সদস্য পদে রিটন প্রধান, ৪, ৫ ও ৬ নং ওয়ার্ডে সংরক্ষিত নারী সদস্য পদে জিন্নাত জিসান ও ৭, ৮ ও ৯ নং ওয়ার্ডে জাহানারা আক্তার বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হয়েছেন। অন্যান্য ওয়ার্ডের সদস্য পদপ্রার্থীরা প্রচার-প্রচারণায় ব্যস্ত সময় পার করছেন।

Please follow and like us: