সোনারগাঁয়ে মসজিদের ইমামকে কুপিয়ে ও জবাই করে হত্যা

স্টাফ রিপোর্টার : নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁয়ে মসজিদের ইমাম দিদারুল ইসলাম(৩৫)কে কুপিয়ে ও জবাই করে হত্যা করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার ভোরে মসজিদের হুজুরখানা থেকে ইমামের মরদেহ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য জেলা হাসপাতাল মর্গে পাঠিয়েছে সোনারগাঁ থানা পুলিশ। নারায়ণগঞ্জ জেলা পুলিশ সুপার হারুন-অর-রশিদ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন।
স্থানীয়সূত্রে জানা গেছে, গত ২৬ জুলাই উপজেলার মোগরাপাড়া ইউনিয়নের দক্ষিন মল্লিকেরপাড়া গ্রামের নারায়ণদিয়া বায়তুল জালাল মসজিদের আগের ইমাম চলে যাওয়ায় পার্শ্ববর্তী ছোট কাজিরগাঁও মসজিদের ইমাম পরিচয়ে এই মসজিদে আসেন দিদারুল ইসলাম। গত সপ্তাহে জুমার নামায পড়িয়ে প্রশিক্ষনের কথা বলে ছুটি নেন তিনি। ৪দিন পর বুধবার বিকেলে মসজিদে এসে আসর থেকে এশার নামায পড়ান। পরদিন বৃহস্পতিবার ভোরে গ্রামের মুসুল্লিরা ফজর নামায পড়তে এসে এবং নামাজের সময় হয়ে যাওয়ায় ইমাম সাহেবের থাকার রুমে গিয়ে তার মরদেহ দেখতে পেয়ে আশপাশের লোকজনকে খবর দিয়ে পুলিশে খবর দেন। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য নারায়ণগঞ্জ জেনারেল হাসপাতাল মর্গে পাঠিয়েছে। নিহত ইমাম দিদারুল ইসলাম খুলনা জেলার তেরখাদা থানার রাজাপুর গ্রামে আফতাব ফরাজীর ছেলে। দুপুরে জেলা পুলিশ সুপার হারুন-অর-রশিদ খবর পেয়ে ঘটনাস্থল পরিদর্শনে এসে বলেন, খুনিদের চিহ্নিত করে দ্রুত গ্রেফতার হবে।
সোনারগাঁ থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মনিরুজ্জামান জানান, নারায়নদিয়া বায়তুল জালাল জামে মসজিদের ইমাম দিদারুল ইসলামের লাশ উদ্ধার করে মর্গে পাঠানো হয়েছে। হত্যাকান্ডের বিষয়টির তদন্ত চলছে।

Please follow and like us: