সোনারগাঁয়ে যৌতুকের দাবীতে কন্যা সন্তানসহ গৃহবধুকে কুপিয়ে পিটিয়ে আহত

সোনারগাঁ প্রতিনিধি: নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁয়ের সাদিপুর ইউনিয়নের ভারগাঁও কাজিপাড়া গ্রামে যৌতুকের দাবীতে কন্যা সন্তানসহ গৃহবধুকে কুপিয়ে ও পিটিয়ে আহত করেছে বলে অভিযোগ উঠেছে। গতকাল বুধবার সকালে ওই গৃহবধুর স্বামী ও শশুরবাড়ির লোকজনের বিরুদ্ধে এ অভিযোগ উঠে। আহতদের সোনারগাঁ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে। এ ঘটনায় আহত গৃহবধু বাদী হয়ে সোনারগাঁ থানায় অভিযোগ দায়ের করেছেন।
সোনারগাঁ থানায় দায়ের করা অভিযোগ গৃহবধু উল্লেখ্য করেন, উপজেলার সাদিপুর ইউনিয়নের ভারগাঁও কাজিপাড়া গ্রামের ফজলুর রহমানের ছেলে আয়নাল হকের সাথে মেঘনা উপজেলার বড়ইকান্দি গ্রামের মো. হায়দার আলীর মেয়ে ইয়াসমিনের সাথে বিয়ে হয়। দাম্পত্য জিবনে তাদের দুটি কন্যা ও একটি পুত্র সন্তান রয়েছে। তার স্বামী দীর্ঘদিন ধরে মাদক সেবন ও জুয়া খেলে আসছে। দু’বছর আগে ওই গৃহবধুকে শারিরিক ও মানসিক নির্যাতন করে তার বাবার বাড়ি থেকে এক লক্ষ টাকা আনতে বলে। ওই সময়ে তার অত্যাচার সইতে না পেরে তার বাবার কাছ থেকে এক লক্ষ টাকা নিয়ে আসে। ওই টাকা তার স্বামী জুয়া খেলে নষ্ট করে ফেলে। কয়েকদিন ধরে পুনরায় তাকে শারিরিকভাবে নির্যাতন করে আরো এক লাখ টাকা বাবার বাড়ি থেকে আনতে চাপ প্রয়োগ করে। এতে রাজি না হওয়ায় গতকাল বুধবার সকালে ওই গৃহবধুকে তার স্বামী আয়নাল হক বটি দিয়ে হাতের কুপিয়ে ও পিটিয়ে আহত করে। এ পর্যায়ে তার ৮ বছর বয়সী ফাহিমা চিৎকার দিলে তাকে মাথায় আঘাত করে আহত করে। এ ঘটনার পর আহতদের সোনারগাঁ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে। এ ঘটনায় আহত গৃহবধু ইয়াসমিন আক্তার বাদী হয়ে স্বামী আয়নাল হক, দেবর এনামুল হক, শশুর ফজলুর রহমান ও শাশুড়ি আসমা বেগমের বিরুদ্ধে সোনারগাঁ থানায় অভিযোগ দায়ের করেছেন।
সোনারগাঁ থানার ওসি মনিরুজ্জামান বলেন, গৃহবধু ও তার কন্যা সন্তানকে কুপিয়ে ও পিটিয়ে আহত করার ঘটনায় অভিযোগ গ্রহন করা হয়েছে। দোষীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।

Please follow and like us: