খুলে দেওয়া হলো রূপগঞ্জের ভুলতা উড়ালসড়ক

রূপগঞ্জ প্রতিনিধি: ঈদে ঘরমুখী যাত্রীদের ভোগান্তি কমাতে খুলে দেওয়া হয়েছে ঢাকা-সিলেট মহাসড়কের ভুলতা উড়ালসড়ক। শুক্রবার (৯ আগস্ট) সকাল সাড়ে ১০টার রূপগঞ্জের ভুলতায় এই উড়ালসড়ক খুলে দেওয়া হয়।

গত ঈদুল ফিতরের আগেও খুলে দেওয়া হয়েছিল উড়ালসড়কটি। কিন্তু সেবার সড়কে গাড়ির চাপ বেশি থাকায় প্রচ- যানজটের সৃষ্টি হয়েছিল। তবে আজ খুলে দেওয়ার পর থেকে উড়াল সড়কের ওপর যানবাহনের তেমন চাপ দেখা যায়নি। ফলে ঢাকা-সিলেট মহাসড়কের গাড়িগুলো যানজট ছাড়াই ভুলতা অংশ পার হতে পারছে।

তবে ঢাকা-বাইপাস (মদনপুর-ভুলতা-জয়দেবপুর) সড়কে শুক্রবার সকাল থেকেই যানজট দেখা গেছে। চালক ও যাত্রীরা জানান, দুই পাশে সংকীর্ণ সড়ক ও মালবাহী গাড়ি চলাচলের কারণে এই সড়কে এমনিতেই গাড়ির চাপ বেশি থাকে। বড় বড় মালবাহী গাড়ি ও কাভার্ড ভ্যানের কারণে যানজটের সৃষ্টি হচ্ছে বলেও মন্তব্য করেন তাঁরা।

এ ব্যাপারে ভুলতা উড়ালসড়কের প্রকল্প পরিচালক প্রকৌশলী আবুল সালেহ মো. নুরুজ্জামান গণমাধ্যমকে জানান, ঈদে ঘরমুখী মানুষের ভোগান্তি কমাতে ভুলতা উড়ালসড়কটি শুক্রবার সকাল থেকে খুলে দেওয়া হয়েছে। উড়ালসড়কের দুই পাশ দিয়ে বিভিন্ন যানবাহন কোনো ধরনের প্রতিবন্ধকতা ছাড়াই চলে যেতে পারছে। ১৮ আগস্ট পর্যন্ত উড়ালসড়ক দিয়ে যানবাহন চলাচল করতে পারবে। এর আগে গত ঈদুল ফিতরেও যাত্রীদের ভোগান্তি কমাতে উড়ালসড়কটি খুলে দেওয়া হয়েছিল।

তিনি আরও জানান, উড়ালসড়কটির নির্মাণকাজ শেষ হয়েছে। এখন শুধু সৌন্দর্যবর্ধনের কিছু কাজ বাকি আছে। ১৮ আগস্ট থেকে সড়কে বাতি লাগানোর কাজ শুরু হবে। সব কাজ শেষ হলে সেপ্টেম্বর নাগাদ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা উড়ালসড়কটির উদ্বোধন করবেন বলে জানান তিনি।

নারায়ণগঞ্জ ট্রাফিক পুলিশের পরিদর্শক মোল্লা তাসলিম হোসেন বলেন, ঢাকা-সিলেট মহাসড়কের ভুলতা অংশে যানজট নিয়ে আমরা চিন্তিত ছিলাম। কিন্তু শুক্রবার সকালে ভুলতা উড়ালসড়কটি খুলে দেওয়ায় গাড়িগুলো কোনো যানজট ছাড়াই চলাচল করতে পারছে। গাড়ির একটু চাপ থাকলেও মহাসড়কের কোথাও কোনো যানজট নেই। তবে ঢাকা-বাইপাস সড়কে গাড়ির বেশ চাপ রয়েছে।

Please follow and like us: