ঈদের ১০ দিন আগে বেতন বোনাস প্রদানের দাবীতে সমাবেশ

ঈদের ১০ দিন পূর্বে সকল পোশাক শ্রমিকদের বেসিক বেতনের সমান উৎসব বোনাসসহ বকেয়া বেতন-ভাতা পরিশোধের দাবিতে বিক্ষোব সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়েছে।
রোববার (২৮ জুলাই) বিকাল ৫টায় নারায়ণগঞ্জ কেন্দ্রীয় শহিদ মিনারে গার্মেন্টস শ্রমিক ফ্রন্ট নারায়ণগঞ্জ জেলার উদ্যোগে বিক্ষোভ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়।
সমাবেশে বিভিন্ন নেতৃবৃন্দরা বলেন, পোশাক শিল্পের রপ্তানি প্রবৃদ্ধির জন্য বাংলাদেশের রপ্তানি আয় নির্ধারিত লক্ষ্যমাত্রা অতিক্রম করে যাচ্ছে। দেশের মাথাপিছু আয়ের হিসাব বৃদ্ধি পাচ্ছে। অথচ এই শিল্পের ভারবাহী হিসাবে মুল ভুমিকা পালনকারী গার্মেন্টস শ্রমিকদের জীবনমানের কোন পরিবর্তন হচ্ছে না।
মজুরি বিবেচনায় বিশ্বের সর্বনি¤œ মজুরির বিনিময়ে কাজ করে যে শ্রমিক কর্মক্ষেত্রের অধিকার ভোগের ক্ষেত্রেও তার অবস্থান বিশ্বের সর্বশেষ ১০টি দেশের তালিকায়। সকল নাগরিকের অধিকার সুরক্ষার শপথ নিয়ে রাষ্ট্র পরিচালনাকারী সরকারও শ্রমিকস্বার্থ হরণকারী আইন তৈরি করে এই শ্রমিকদের আরও বেশি বঞ্চিত করতে মালিকদের জন্য সুযোগ তৈরি করে দিচ্ছেন।
তারা আরো বলেন, ঊৎসবের সময় সারা বছর কঠোর পরিশ্রম করা পোশাক শ্রমিকরা তাদের স্বজনদের সাথে মিলিত হওয়ার জন্য উদগ্রিব থাকে। শ্রমিকদের এই মনোভাব মালিকদের জানা আছে বলে তারা বেতন-ভাতা পরিশোধ করতে দেরি করে যেন ন্যায্য বেতন-ভাতা থেকে বঞ্চিত হলেও শ্রমিকরা প্রতিবাদ করার সুযোগ না পায়।
মালিকদের এই দুরভিসন্ধি বন্ধের জন্য সরকারকে ভুমিকা রাখতে হবে। কিন্তু সরকার বেতন-ভাতা পরিশোধের নির্দিষ্ট সময় নির্ধারণ করে না দিয়ে লুটেরা মালিকদের প্রশ্রয় দিচ্ছে।
এছাড়া ঈদ-উল-আযহার ১০ দিনপূর্বে পোশাক শ্রমিকদের বেসিক বেতনের সমান বোনাস এবং জুলাই মাসের পূর্ণ বেতন ও ওভারটাইম পরিশোধের দাবিও জানান তাঁরা।
সমাবেশে গার্মেন্টস শ্রমিক ফ্রন্ট নারায়ণগঞ্জ জেলার সভাপতি সেলিম মাহমুদ এর সভাপত্বিতে বিক্ষোভ সমাবেশে উপস্থিত ছিলেন, সমাজতান্ত্রিক শ্রমিক ফ্রন্ট নারায়ণগঞ্জ জেলার সভাপতি আবু নাঈম খান বিপ্লব, গার্মেন্টস শ্রমিক ফ্রন্ট নারায়ণগঞ্জ জেলার সাধারণ সম্পাদক জাহাঙ্গীর আলম গোলক, সহ-সভাপতি সাইফুল ইসলাম শরীফ, দপ্তর সম্পাদক কামাল পারভেজ মিঠু, বিসিক শাখার সভাপতি নূর হোসেন সরদার, সিদ্ধিরগঞ্জ থানার সাধারণ সম্পাদক রুহুল আমিন সোহাগ, গাবতলী-পুলিশ লাইন শাখার সাধারণ সম্পাদক হাসনাত কবীর, কাঁচপুর শাখার নেতা আনোয়ার হোসেন প্রমূখ।

Please follow and like us: