মানবতা কোথায় গিয়ে দাড়িয়েছে !!!!

সময়ের চিন্তা ডট কমঃ আজ যা পত্রিকার শিরোনাম, কাল তা বাসি খবর। পরশু সেই পত্রিকা রদ্দিওয়ালা কিনে নেয় সের দরে, তারপর সেই গরম গরম শিরোনামের পত্রিকায় ঠোঙা বানিয়ে বিক্রি হয়, গরম গরম ভাজা বাদাম…
” এই চিনা বাদাম, চিনা বাদাম..পঞ্চাশ গ্রামের ঠোঙ্গা দশ টাকা… এই লাগবো নাকি বাদাম…”
শিরোনামের ঠোঙায় রাখা বাদাম চিবুতে চিবুতে গলদ করন করে ফেলি, কতশত হাহাকার, বিচার না পাওয়া আর্জি, খুন, সন্ত্রাস, ধর্ষণ, বিষাক্ত ওষুধ, ভেজাল খাবার, হাজার কোটি টাকা লুট, শিশু হত্যা ইত্যাদি…!!
” বিচার ” প্রমাণ সাপেক্ষে অপরাধীর শাস্তি…এই তো হওয়া উচিত। আমাদের সাথে করা অন্যায়ের জন্য বিচার চাইতে হবে কেন..?  কেন বিচারের আশায় করতে হবে মানববন্ধন…? কেন মহামান্যের কাঠগড়ায় চিৎকার করে বলতে হবে..” আমি বিচার চাই..আমি বিচার চাই “…..!!
একটি দূর্ঘটনার নীচে চাপা পড়ে যায় আরেকটি দূর্ঘটনা.. নতুন কোন আত্মচিৎকারে ঢেকে যায় গতকালের ঘটে যাওয়া ক্ষত….!! সময়ের টানে হয়ত একদিন ক্ষতটা শুকিয়ে আসে অথবা পচন ধরে…বিচারহীন অপরাধ ডাল-পালা  ছেড়ে দিয়ে বিশাল মহিরুহে পরিনত হয় আর বিচারের আশায় থাকা মানুষগুলো ক্রমান্বয়ে অন্ধ, বোবা, বধির হয়ে বেঁচে থাকে দীর্ঘ শ্বাসের বোঝা নিয়ে..উপায়হীন হয়ে ফরিয়াদ জানায় আল্লাহ’র দরবারে…” হে আল্লাহ তুমি বিচার করো “…!!

শব্দের মায়াজালের শিরোনামে বন্দি হয়ে যাবে, স্ত্রীর সামনে স্বামীর খুনের আর্তনাদ.. আস্তাকুঁড়ে পড়ে থাকবে, খবরের কাগজ আর অন্তপুরে স্ত্রীর কান্না । থামাতে ব্যস্ত স্বজনের আহাজারিতে ভারি হয়ে উঠবে বাতাস..!!
আজকের ঘটনা , কাল অতীত হয়ে যাবে…রানা প্লাজা , তাজরিন, চকবাজার, বনানীর দূর্ঘটনার মৃতের সংখ্যা চাপা পড়ে গেছে তাদের দেহের সাথেই মাটির নীচে। মিন্নি ও হারিয়ে যাবে তনু কিংবা নুসরাতের মত…!!
“এই বিচার খাবেন, বিচার…পঞ্চাশ গ্রাম বিচারের দাম দশ টাকা”-আরে কি বলছি এসব…
এই গরম গরম শিরোনামে প্যাঁচানো… চিনা বাদাম নিয়ে যান, এক ঠোঙা দশ টাকা।। সুত্র ফেইচবুক

Please follow and like us: