জঙ্গিবিরোধী সচেতনতা তৈরি করতে ইমামদের আহবান ডিসির

স্টাফ রিপোর্টার: গুরুত্ব, আন্তরিকতা এবং দেশকে ভালবেসে জঙ্গিবাদ বিরোধী সর্ম্পকে সকলকে সচেতন করার জন্য ইমামদের আহবান জানিয়েছেন জেলা প্রশাসক মো: রাব্বী মিয়া।
তিনি বলেছেন, একজন মানুষকে হত্যা করা মানে জাহানের সকল মানুষকে হত্যা করার সামীল। বিনা কারণে কোন ধর্মেরই মানুষ হত্যার বিধান নেই। কিন্তু জঙ্গিরা একজনকে টার্গেট করে শত শত মানুষ হত্যা করছে। মসজিদের ইমামদের অনেকে অনুসরন করে, শ্রদ্ধা করে। তাই মসজিদের ইমামরাই পারবে মানুষের মনের মধ্যে প্রবেশ করে তাদের এই বিষয়ে সচেতন করতে।
সোমবার (৮ মে) সকালে জেলা প্রশাসকরে সভাকক্ষে ইসলামিক ফাউন্ডেশন কর্তৃক আয়োজিত, সোনারগাঁও উপজেলার প্রশিক্ষনপ্রাপ্ত ইমামদের সম্মেলনে প্রধান অতিথির বক্তব্যে কালে উপরোক্ত কথাগুলো বলেন।
তিনি আরো বলেন, জঙ্গিরা ধর্মের অপব্যাখা করে মানুষ হত্যা করছে। বোমাবাজি করে মানুষ হত্যা করছে। আর সেই বোমাবাজিতে যদি আমি বা আপনি মারা যাই, তাহলে সেই দায়বার কে নেবে? ইসলামতো শান্তির ধর্ম, সুতরাং নিজের এবং পরিবারের কথা ভেবে সকলকেই এই বিষয়ে সচেতন হতে হবে।
তিনি ইমাম এবং মুসলিম ধর্মের অনুসারীদের উদ্দেশ্যে করে বলেন, বাংলাদেশে সংখ্যাগুরু হচ্ছে ইসলাম, তাই সংখ্যাগুরু হিসাবে আমাদের উচিত সংখ্যালঘুদের সম্মান এবং সহযোগিতা করা।
সভাপতির বক্তব্যে জেলা ইসলামিক ফাউন্ডেশনের উপ-পরিচালক মোস্তাফিজুর রহমান বলেন, জঙ্গিবাদ দমনে পুলিশ প্রশাসন এবং বিভিন্ন জেলা প্রশাসনের কর্মকর্তারা যৌথভাবে কাজ করছে। তাদের পাশাপাশি আমাদেরও সচেতন হতে হবে।
জেলা ইসলামিক ফাউন্ডেশনের সহকারী পরিচালক মো: মহিউদ্দিনের সঞ্চলনায় সম্মেলনে বিশেষ অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (প্রশাসন) মোস্তাফিজুর রহমান। পবিত্র কোরআন থেকে তেলওয়াত করেন সোনারগাঁ গোয়ালন্দী জামে মসজিদের ইমাম এবং খতিব মা: মাসুম বিল্লা, হামদ/নাত পরিবেশন করেন মাওলানা শফিকুল ইসলাম এবং ইমামদের পক্ষ হতে বক্তব্য রাখেন সোনারগাঁ উপজেলা পরিষদ জামে মসজিদের ইমাম ও খতিব মাও: মিজানুর রহমান।

Please follow and like us: