‘আমি সংখ্যালঘু ও সংখ্যাগুরুতে বিশ্বাস করি না’

রুদ্রবার্তা২৪.নেট: বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য গয়েশ্বর চন্দ্র রায় বলেছেন, আমি সংখ্যালঘু ও সংখ্যাগুরুতে বিশ্বাস করি না। সংবিধান অনুযায়ী দেশের সব জনগণ সমান।
বৃহস্পতিবার বেলা ১১টায় যশোরের একটি হোটেলে স্থানীয় সাংবাদিকদের সঙ্গে মতবিনিময় সভায় তিনি এসব কথা বলেন।
গয়েশ্বর বলেন, সব জনগোষ্ঠীর ভালোভাবে বেঁচে থাকার অধিকার রয়েছে। দেশের জনগণের নিরাপত্তা নিশ্চিত করা সকরারের দায়িত্ব। কিন্তু সরকার দায়িত্ব পালনে ব্যর্থ।
তিনি বলেন, বিএনপির জন্ম বহুদলীয় গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠার জন্য। বিএনপি অগণতান্ত্রিক বিতর্কিত নির্বাচনে কখনো অংশ গ্রহণ করেনি। ভবিষতেও বহুদলীয় গণতন্ত্র প্রাতিষ্ঠানিক রূপ লাভ না করা পর্যন্ত ভোটের পথে হাঁটবে না। ৯৬’র ১৫ ফেব্রুয়ারির নির্বাচন নিয়ে অনেকে প্রশ্ন তোলেন। কিন্তু সেই নির্বাচন ছিল জনগণের দাবি পূরণের জন্য।
বিএনপির এই নেতা বলেন, সংসদে জনগণের দাবি উপস্থাপন করা হয়েছিল। সংসদে তত্তাবধায়ক সরকার আইন পাস হওয়ার পর বিএনপি পদত্যাগ করেছিল। তখন আওয়ামী লীগসহ বিভিন্ন দলের দাবি পূরণে তত্তবধায়ক সরকার আইন পাস করা হয়েছিল। সেই দাবি আমরা পুনরায় করছি।
তিনি আরো বলেন, প্রধান বিচারপতি এসকে সিনহাকে নিয়ে আইনমন্ত্রী যেভাবে বক্তব্য দিয়েছেন, সেটি শপথ ভঙ্গের শামিল। বিচার বিভাগকে যদি ডিসি, এসপিদের মতো সরকারকে সন্তুষ্ট করতে হয়, তাহলে জনগণের ন্যায় বিচার পাওয়ার জায়গা থাকে না।
মতবিনিময় সভায় উপস্থিত ছিলেন- বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান নিতাই রায় চৌধুরী, সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক (ঢাকা বিভাগ) আবদুস সালাম, সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক (খুলনা বিভাগ) অনিন্দ্য ইসলাম অমিত ও জয়ন্ত কুণ্ডু, সহ-ধর্মবিষয়ক সম্পাদক অমলেন্দু দাস অপু, জেলা বিএনপির ভারপ্রাপ্ত সভাপতি শামসুল হুদা, সাধারণ সম্পাদক সাবেরুল হক সাবু, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আবদুস সালাম, সাংগঠনিক সম্পাদক দেলোয়ার হোসেন খোকন প্রমুখ।

Please follow and like us: